প্রচ্ছদ > ক্যারিয়ার > বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ দেবে, সঙ্গে টাকাও!
বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ দেবে, সঙ্গে টাকাও!

বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ দেবে, সঙ্গে টাকাও!

বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রগ্রামের (সেপ) অর্থায়নে মেশিনশপ, ওয়েল্ডিং ও ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্স বিষয়ে বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রের (বিটাক) চট্টগ্রাম কেন্দ্র এ প্রশিক্ষণ দেবে। জানাচ্ছেন ফরহাদ হোসেন

আবেদনের যোগ্যতা  
বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রের (বিটাক) চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ট্রেনিং ডিভিশন ইনচার্জ ফারহানা আক্তার জানান, আগ্রহী প্রার্থীর শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে অষ্টম শ্রেণি বা জেএসসি পাস। প্রশিক্ষণ নেওয়ার পর কাজ করার মানসিকতা থাকতে হবে। বয়স থাকতে হবে কমপক্ষে ১৮ বছর। প্রতি ট্রেডে প্রশিক্ষণ পাবে ৩০ জন। সেপ প্রকল্পের অধীনে ২০১৬ সালের জুন থেকে ২০১৮ সালের জুন পর্যন্ত দুই বছরে মোট ৫৪০ জনকে মেশিনশপ, ওয়েল্ডিং ও ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্স বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করবে বিটাকের চট্টগ্রাম কেন্দ্র।

ভর্তি প্রক্রিয়া
আবেদন করতে হবে এসইআইপি প্রদেয় বিটাকের নির্ধারিত ফরমে। ভর্তি ফরম বিটাকের ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করা যাবে। এ ছাড়া বিটাক চট্টগ্রাম, সাগরিকা রোড, পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম-৪২১৯; বিটাক, ঢাকা, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮; বিটাক, খুলনা, প্লট নং আর-১৪, কেডিএ শিল্প এলাকা, শিরোমনি, খুলনা-৯২০৪ ও বিটাক, বগুড়া, নিশিন্দারা, কারবালা, বগুড়া-৫৮০০ অফিসের ভর্তি শাখা থেকে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করা যাবে। জুন ২০১৭ ব্যাচে প্রশিক্ষণ নিতে চাইলে পূরণকৃত ফরম ডাকযোগে পাঠাতে হবে ২৬ মের মধ্যে। আবেদন ফরম পাঠানোর ঠিকানা বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র (বিটাক), সাগরিকা রোড, পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম-৪২১৯। ফরমের সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতা সনদের সত্যায়িত ফটোকপি, জাতীয় পরিচয়পত্রের অথবা জন্ম নিবন্ধনের সত্যায়িত ফটোকপি, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বা কাউন্সিলর প্রদত্ত নাগরিক সনদপত্র ও সদ্য তোলা এককপি পাসপোর্ট সাইজ ও এককপি স্ট্যাম্প সাইজের সত্যায়িত ছবি জমা দিতে হবে।

বাছাই প্রক্রিয়া
ফারহানা আক্তার জানান, আবেদন যাচাই শেষে প্রার্থীদের বাছাইয়ের জন্য মেৌখিক পরীক্ষায় ডাকা হবে। বাছাই পরীক্ষা নেওয়া হবে ৩০ ও ৩১ মে ২০১৭ সকাল ৯টা থেকে। প্রার্থীদের সকাল ৯টায় বিটাকের চট্টগ্রাম অফিসে হাজির থাকতে হবে। মৌখিক ভর্তি পরীক্ষায় যারা পাস করবে তাদের জানিয়ে দেওয়া হবে ওই দিনই। কোর্স শুরু হবে ১ জুন ২০১৭। বাছাই পরীক্ষায় শিক্ষাগত যোগ্যতার পাশাপাশি দেখা হবে কোর্স করার আগ্রহ, আগে কোনো কোর্সে প্রশিক্ষণ নিয়েছে কি না, কেন এ কোর্সটি করতে চায়, কোর্স শেষে তার লক্ষ্য কী, কাজের মানসিকতা আছে কি না, পছন্দের বিষয়ে কতটুকু জানাশোনাসহ সাধারণ জ্ঞানে কেমন ধারণা আছে সে বিষয়গুলো জানতে চাওয়া হবে প্রার্থীদের কাছে। যারা সঠিক ও গুছিয়ে উত্তর দিতে পারবে তাদেরই মনোনীত করা হবে প্রশিক্ষণের জন্য। কোর্সে অংশগ্রহণে নারী ও উপজাতিদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।

প্রশিক্ষণ পদ্ধতি ও স্থান
প্রত্যেক প্রশিক্ষাণার্থীকে হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ‌প্র্যাকটিক্যাল ও থিওরিটিক্যাল-দুই পদ্ধতিতে নেওয়া হবে ক্লাস। একজন প্রশিক্ষণার্থীর ৮০ শতাংশ ক্লাসে উপস্থিত থাকা বাধ্যতামূলক। সরকারি ছুটি ব্যতীত সপ্তাহের ৫ দিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত প্রশিক্ষণের ক্লাস নেওয়া হবে। মেশিনশপ, ওয়েল্ডিং ও ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্স বিষয়ে প্রশিক্ষণের মেয়াদ সর্বমোট চার মাস। তিন মাস থিওরিটিক্যাল ক্লাসের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। থিওরিটিক্যাল ক্লাসের প্রশিক্ষণ শেষে সংশি্লষ্ট শিল্প কারখানায় এক মাসের বাস্তব প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

ভাতা ও চাকরি
ফারহানা আক্তার জানান, প্রশিক্ষণ চলাকালীন সময়ে ও কোর্স সম্পন্ন করলে পাওয়া যাবে ভাতার টাকা। তিন মাসের থিওরিটিক্যাল ক্লাস শেষে তিন হাজার টাকা ও এক মাসের ব্যবহারিক ক্লাস শেষে দেওয়া হবে এক হাজার ৫০০ টাকা। কোর্স শেষে একজন প্রার্থী মোট চার হাজার ৫০০ টাকা প্রশিক্ষণ ভাতা পাবেন। প্রশিক্ষণের জন্য প্রার্থীদের কোনো ধরনের ফি দেওয়া লাগবে না। প্রশিক্ষণ শেষে দেওয়া হবে সনদপত্র। এ ছাড়া প্রশিক্ষণ শেষে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করে চাকরির ব্যবস্থা করে দেওয়া হয় প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান থেকেই।

সুযোগ রয়েছে আরো
বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রের (বিটাক) ঢাকা কেন্দ্রের অতিরিক্ত পরিচালক ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, ঢাকাসহ বিটাকের মোট চারটি কেন্দ্র থেকে এসইআইপি প্রকল্পের মাধ্যমে বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণ নেওয়ার সুযোগ আছে। মেশিনশপ, ওয়েল্ডিং ও ইলেকট্রিক্যাল মেইনটেন্যান্স-এ তিনটি বিষয়ে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও বগুড়া কেন্দ্র প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। প্রশিক্ষণ শুরুর আগে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে প্রশিক্ষণার্থী মনোনীত করা হয়। আগ্রহী প্রার্থীরা নিজেদের পছন্দমত বিষয়ে ও কাছের কেন্দ্র থেকে এ প্রশিক্ষণ নেওয়ার সুযোগ পাবে।

যোগাযোগ
প্রশিক্ষণ সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করা যাবে ছুটির দিন বাদে অফিস চলাকালে বিটাকের ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও বগুড়া কেন্দ্র থেকে। আবেদন ফরম জমা ও ট্রেনিং প্রদানের স্থান বিটাক চট্টগ্রাম, সাগরিকা রোড, পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম-৪২১৯।
ফোন : ০৩১-২৭৭০০০৬, ৭৫১৫৭৬ এক্স ২৬।
ওয়েব : www.bitac.gov.bd

 

Comments

comments

About অ্যাডমিন

Comments are closed.