প্রচ্ছদ > ক্যারিয়ার > তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ মানেই চাকরি
তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ মানেই চাকরি

তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ মানেই চাকরি

তথ্যপ্রযুক্তিতে নিজেকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারলে চাকরির পেছনে ছুটতে হবে না, চাকরিই আপনাকে খুঁজে নেবে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আরাফাত শাহরিয়ার।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দিন দিন বাড়ছে কাজের ক্ষেত্র। প্রয়োজনীয় আইটি প্রশিক্ষণ নিয়ে চাকরির বাজারে খুব সহজেই জায়গা করে নেওয়া যায়। তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার জানান, তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষতা থাকলে এখন প্রচুর কাজের সুযোগ পাওয়া যায়। আউটসোর্সিংয়েই পাঁচ হাজারের মতো কাজ আছে। নিজেই ঠিক করুন আপনি কোন কাজটি করবেন, কোন বিষয়ে আপনার দক্ষতা আছে। যেকোনো বিষয়ে পড়েই আইটি সেক্টরে কাজ করা যায়। তবে এর জন্য কম্পিউটারে দখল থাকতে হবে। দক্ষ হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে নিতে হবে প্রশিক্ষণ।

তৈরি করুন নিজেকে

ওয়েবসাইট ডিজাইন ও ডেভেলপিংয়ের অনেক চাহিদা। পান্থপথের ডিআইআইটির কোর্স কো-অর্ডিনেটর নাজরানা হক জানান, মোটামুটি কম্পিউটারে জ্ঞান থাকলেই প্রশিক্ষণ নিয়ে ওয়েবসাইট ডিজাইনার ও ডেভেলপার হওয়া যায়। গ্রাফিকস ডিজাইনেরও চাহিদা বেশ। ওয়েবসাইট ডিজাইন শিখলে গ্রাফিক ডিজাইনও শেখা হয়ে যায়।

অটোক্যাডেরও চাহিদা বেশ। এর জন্য টুডি বা ফান্ডামেন্টাল, থ্রিডি অটোক্যাড, থ্রিডি স্টুডিও ম্যাক্স, থ্রিডি মডেলিং এনিমেশন সফটওয়্যারগুলো ভালোভাবে শিখতে হয়। কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং বা সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট শেখার আগে প্রথমে বেসিক প্রোগ্রামিং শিখতে হয়। তবে বেসিক প্রোগ্রামিং শিখেও ক্যারিয়ার শুরু করা যায়। এর জন্য শিখতে হবে এ প্লাস, সি ল্যাঙ্গুয়েজ, সি শার্প, এএসপি ডটনেট প্রভৃতি। এমএস ওয়ার্ড, পাওয়ার পয়েন্ট, এক্সেল, এএসপি ডটনেট, সি শার্প, ভিজ্যুয়াল বেসিকের ওপর প্রশিক্ষণ নিলে তা অনেক চাকরি পেতে সহায়ক হয়। সিসিএনএ, মাইক্রোসফট এমভিপি ও এমসিএসই সনদ থাকলে চাকরির ক্ষেত্রে অনেক কাজে লাগে।

কেমন খরচ

ফার্মগেটের বাংলা সফটের প্রধান নির্বাহী সোহেল রানা জানান, প্রতিষ্ঠান ও কোর্সভেদে খরচ কমবেশি হয়ে থাকে। ওয়েবসাইট ডিজাইন ও ডেভেলপিং কোর্সে ৮ থেকে ২০ হাজার টাকা খরচ লাগে। শুধু ওয়েবসাইট জিজাইন শিখলে লাগবে পাঁচ থেকে ১৫ হাজার টাকা। চার থেকে ১৫ হাজার টাকায় শেখা যায় গ্রাফিক ডিজাইন। কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং বা সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট কোর্সে খরচ একটু বেশি। এর জন্য গুনতে হবে ১০ থেকে ২০ হাজার টাকা। দুই থেকে ১০ হাজার টাকায় করা যাবে কম্পিউটারের বেসিক কোর্স।

স্কলারশিপ নিয়ে প্রশিক্ষণ

তথ্যপ্রযুক্তিতে বিভিন্ন মেয়াদি বৃত্তি দেয় ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (আইডিবি) ও বাংলাদেশ ইসলামিক সলিডারিটি এডুকেশনাল ওয়াক্ফ (বিআইএসইডাব্লিউ)। নির্বাচিতরা বিনা খরচে আইটি প্রশিক্ষণ এবং বিশ্বখ্যাত আইটি প্রতিষ্ঠানের ভেন্ডর সার্টিফিকেশনের সুযোগ পান। যোগাযোগ করতে পারেন আইডিবি ভবন, ৫ম তলা, শেরে বাংলানগর- এই ঠিকানায়। দরকারি তথ্য জানা যাবে এই ওয়েবসাইটে www.idb-bisew.org

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে বৃত্তি দিচ্ছে সরকারি প্রতিষ্ঠান হাইটেক পার্ক। গ্রাফিকস ডিজাইন, এসইও, নেটওয়ার্কিংসহ নানা বিষয়ে বিনা মূল্যে প্রশিক্ষণের সুযোগ রয়েছে। কিছু আইটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে কয়েক পর্বে এই বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে। যেকোনো বিষয়ে স্নাতক এবং কম্পিউটারের ওপর যাদের বেসিক ধারণা রয়েছে, তারা এই বৃত্তি পাবেন। হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ওয়েব ঠিকানা- www.htpbd.org.bd

কেমন কাজের সুযোগ

অনেক প্রতিষ্ঠান ওয়েবসাইট ডিজাইনার ও ডেভেলপার নিয়োগ দেয়। কাজ জানা থাকলে কোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতে হবে এমন কথা নেই। অনলাইনে ফ্রিল্যান্সিংয়ের মাধ্যমেও আয় করা যায়। গ্রাফিক ডিজাইনের বেলায় একই কথা প্রযোজ্য। গ্রাফিক ডিজাইন শিখে ইন্টেরিয়র ডিজাইনের কাজও করতে পারেন। ইঞ্জিনিয়ারিং ফার্ম, ইন্টেরিয়র ডিজাইন, গ্রাফিকস ডিজাইন, সার্ভে অফিস, রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠান, হ্যান্ডিক্রাফটস নির্মাতা প্রতিষ্ঠানে অটোক্যাড ডিজাইনারদের কাজের সুযোগ রয়েছে। বেসিক প্রোগ্রামিং শিখেও যেকোনো তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে বা কোনো প্রতিষ্ঠানের আইটি বিভাগে কাজের সুযোগ পাওয়া যায়।

আয়-রোজগার

আয়টা নির্ভর করে কাজের দক্ষতা, যোগাযোগ ও আপনি কতটা সময় দিচ্ছেন তার ওপর। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে গ্রাহকের কাজ শেষ করলে পরে কাজ পেতে সহায়ক হয়। ফ্রিল্যান্সার শামীম আলামিন জানান, ঘরে বসে ইন্টারনেটে কাজ করেই একজন ফ্রিল্যান্সার গ্রাফিকস ডিজাইনার মাসে ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা আয় করতে পারেন। ওয়েবসাইট ডিজাইনিং ও ডেভেলপিংয়ের মাধ্যমেও মাসে ৩০ থেকে ৫০ হাজার টাকা আয় করা যায়। অটোক্যাড অপারেটররা মাসে ১২ থেকে ৩৫ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন। বেসিক প্রোগ্রামিং শেষ করে চাকরিতে ঢুকলে আট থেকে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পাওয়া যায়।

কিছু প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

* বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল : ০২-৮১৪৪৬৬৯

* বাংলা সফট : ০১৯১২০১৩১৭০

* নিউ হরিজন : ০২-৮৬২৩০৬৩

* সফটনেট : ০২-৯৩৪৬৯০৪

* ডিআইআইটি : ০২-৯১১৭২০৫

* পাওয়ার ম্যাক : ০১৭২০৯৯৬৯৪২

* ফাইভ আর সল্যুশন : ০১৭১৫১৩০৮৬০

* অটোক্যাড ট্রেনিং হোম : ০১৭১১৮২৫৮০৩

* অটোক্যাড ইনস্টিটিউট : ০২-৯১৪৪১২৫

* ভূইয়া কম্পিউটার্স : ০১৭১৩৩৩০৪২৭

* আইটি বাংলা : ০১৭৩৩৯৯০৫৪১

* আইটি এক্সপ্রেস : ০১৮১৭০৯৫২৮৩

* এনআইআইটি : ০১৭২০৫০৭২৭৯

* আইআইবিএসটি : ০১৯১৪১৮৯১০৭

Comments

comments

Comments are closed.