প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > ঘরে বসেই আয়কর রিটার্ন জমা
ঘরে বসেই আয়কর রিটার্ন জমা

ঘরে বসেই আয়কর রিটার্ন জমা

এত দিন অনলাইনে আয়কর শনাক্তকরণ নম্বর (টিআইএন) নেওয়া যেত, কিছু ক্ষেত্রে আয়কর রিটার্নও জমা করা যেত। ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে অনলাইনেই সব করদাতা তাঁদের আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন। আর এত দিন শুধু রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালি ও জনতা ব্যাংকের মাধ্যমেই আয়কর জমা দেওয়া যেত। ডিজিটাল পদ্ধতি বাস্তবায়িত হলে করদাতারা দেশের যেকোনো স্থানের যেকোনো বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে আয়কর জমা করতে পারবেন। ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেও এই টাকা জমা দেওয়ার ব্যবস্থা এতে থাকবে।
জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন বলেন, দেশে মাত্র ১৮ লাখ মানুষ করজালের (ট্যাক্স নেট) আওতায় আছেন। কিন্তু কর দেওয়ার যোগ্য লোকের সংখ্যা কমপক্ষে ৬০ লাখ। প্রত্যক্ষ করব্যবস্থা আধুনিক করে করদাতাদের সংখ্যা বাড়াতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) ঋণ সহায়তায় অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া এবং এই ব্যবস্থার ডিজিটালাইজড করাসংক্রান্ত প্রকল্পটি বাস্তবায়নের কাজ পেয়েছে ভিয়েতনামের এফপিটি ইনফরমেশন সিস্টেম করপোরেশন। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে গত ২৪ আগস্ট একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে এনবিআর। প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৫১ কোটি টাকা।
এনবিআর চেয়ারম্যান জানান, ২০১৫ সালের মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। প্রকল্পের কার্যকারিতা যাচাইয়ে পাইলট প্রকল্পের কাজ শুরু করা হবে আগামী ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাইয়ের মধ্যে। তিন মাস ধরে ঢাকা ও চট্টগ্রামের মতো বড় শহরগুলোতে পরীক্ষামূলক এই কাজ চলবে। এতে বড় ধরনের কোনো সমস্যা না হলে ২০১৬ সালের ১ জানুয়ারি থেকে করদাতারা এই সুবিধা পাবেন।
আয়কর পদ্ধতি ডিজিটাল হয়ে গেলে পুরোনো পদ্ধতিতে আয়কর জমা দেওয়ার সুযোগ থাকবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘পুরো ডিজিটাল হয়ে গেলে আবার অ্যানালগে আমরা কেন যাব?’
প্রকল্পের পরিচালক কালিপদ হালদার জানান, আয়কর রিটার্ন জমার পদ্ধতি ডিজিটাল করার প্রকল্পটি পুরো বাস্তবায়িত হলে ঘরে বসেই করদাতারা নিজেদের রিটার্ন পূরণ ও দাখিল করতে পারবেন। এর সঙ্গে দেশের সব কর কার্যালয় ডিজিটাল আন্তসংযোগের আওতায় আসবে।

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*