প্রচ্ছদ > আইনশৃঙ্খলা > তথ্য অধিকার > কারখানা বন্ধ থাকলে দুই মাসের বেতন পাবেন শ্রমিকেরা
কারখানা বন্ধ থাকলে দুই মাসের বেতন পাবেন শ্রমিকেরা

কারখানা বন্ধ থাকলে দুই মাসের বেতন পাবেন শ্রমিকেরা

কোনো কারণে পোশাক কারখানা বন্ধ রাখা হলে প্রথম দুই মাসের বেতন পাবেন গার্মেন্টস শ্রমিকেরা। বেতনের ৫০ শতাংশ দেবে উত্তর আমেরিকার ক্রেতাদের জোট অ্যালায়েন্স ফর বাংলাদেশ ওয়ার্কার সেফটি। বাকি টাকা দেবেন কারখানার মালিকেরা। অ্যালায়েন্স ও পোশাক কারখানা মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন সফররত অ্যলায়েন্সের স্বতন্ত্র সভাপতি অ্যালেন টশার, বিজিএমইএর সভাপতি আতিকুল ইসলাম, অ্যালায়েন্স বাংলাদেশের বোর্ড পরিচালক মোহাম্মদ এ আলী (রুমী), উপদেষ্টা ওয়াজিদুল ইসলাম, বাংলাদেশ শ্রমিক লীগের সভাপতি শুকুর মাহমুদ, শ্রমিকনেতা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।
অ্যালায়েন্স উত্তর আমেরিকার ২৬টি পোশাক কোম্পানি, খুচরা বিক্রেতাদের সংগঠন। গত বছর রানা প্লাজার দুর্ঘটনায় ব্যাপক প্রাণহানির পর বাংলাদেশে কাজ শুরু করে অ্যালায়েন্স।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, অ্যালায়েন্স জোটের জন্য পণ্য তৈরি করে এমন ৭০০ কারখানার মধ্যে অর্ধেকের বেশি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন শেষ হয়েছে। এর মধ্যে অগ্নিকাণ্ড প্রতিরোধ-ব্যবস্থা ত্রুটিমুক্ত করতে একটি কারখানা ১৩ দিন বন্ধ রাখতে হয়েছে। আরও দুটি কারখানা সম্পর্কে নেতিবাচক প্রতিবেদন জমা দিয়েছে অ্যালায়েন্স।
সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ২০১৪ সালের জুলাই মাসের মধ্যে ১০ লাখ শ্রমিককে প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৪ লাখ শ্রমিক ও ব্যবস্থাপককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শ্রমিকদের নিরাপত্তার স্বার্থে কারখানার কর্মপরিবেশ উন্নত করতে ৫ বছরে ৫ কোটি ডলার ব্যয় করবে অ্যালায়েন্স।

Comments

comments

Comments are closed.