প্রচ্ছদ > লাইফস্টাইল > টিপস > দিনে সোফা রাতে খাট
দিনে সোফা রাতে খাট

দিনে সোফা রাতে খাট

ছোট থেকে ছোটতর হচ্ছে ফ্ল্যাটের আয়তন। এসব কারণে ফোল্ডিং ফার্নিচারের ব্যবহার বেশি হচ্ছে। খাট থেকে শুরু করে চেয়ার, টেবিল, সোফা_সবই এখন ফোল্ডিং। কাজ শেষে এসব ফার্নিচার ভাঁজ করে তুলে রাখা যায়। অথবা অন্যভাবে ব্যবহার করা যায়। কোথায় কি ফোল্ডিং ফার্নিচার ব্যবহার করবেন, জেনে নিন-

স্টুডিও অ্যাপার্টমেন্ট, গেস্টরুম, ফ্যামিলি লিভিং এমনকি ড্রয়িং রুমেও রাখতে পারেন ফোল্ডিং খাট। দিনের বেলা সোফা আর রাতের বেলা খাট হিসেবে ব্যবহার করা যায়। ফোল্ডিং খাট দুই বা তিন ভাঁজের হয়। বড় খাটের প্রয়োজন হলে তিন ভাঁজের খাট নিন। দুই ভাঁজের খাট সাধারণত কাপল বেড হিসেবে ব্যবহার করা যায়।
বাজারে বিভিন্ন ধরনের ভাঁজ করা খাবার টেবিল পাওয়া যায়। কিছু খাবার টেবিল পুরোটাই ভাঁজ করে রাখা যায়। আবার কিছু খাবার টেবিলের খানিকটা অংশ ভাঁজ করে টেবিলের আকৃতিটা ছোট করে রাখা যায়। যেমন_একটা চার ফুট বর্গাকার খাবার টেবিল। আরো দুই ফুট করে একটু গোলাকার অংশ ভাঁজ করে দুই পাশে ঝোলানো থাকে। প্রয়োজনমতো ভাঁজ করা অংশ দুটো খুলে এটাকে আট ফুটের বড় খাবার টেবিল করে নেওয়া যায়।
প্রয়োজন অনুযায়ী খাবার টেবিল বেছে নিন। জায়গা একেবারে না থাকলে পুরো ফোল্ডিং টেবিল নিন। ব্যবহার শেষে স্টোররুম বা কোনো পর্দার পেছনে লুকিয়ে রাখা যায়। কিছু টেবিল আছে ছোট বড় দুই রকমই করা যায়। সেরকমই টেবিলও বেছে নিতে পারেন।
খাবার টেবিলে সাধারণ চেয়ারের পাশাপাশি বেশি অতিথির জন্য কিছু ফোল্ডিং চেয়ার রাখুন। প্রয়োজনে এ চেয়ারগুলো বসার ঘরেও ব্যবহার করা যাবে।
বসার ঘরের সেন্টার টেবিলটিও ভাঁজ করে রাখা যায়। আর কিছু সেন্টার টেবিল বসার টুল হিসেবে ব্যবহার করা যায়। চারটি টুল একত্রে করলে সেন্টার টেবিল হয়। আলাদা করলে টুল হয়ে যায়।
শিশুদের ঘর ছোট হলে সেখানে একটা ফোল্ডিং পড়ার টেবিল রাখুন। দেয়ালে কেবিনেট করে বুকশেলফ করে এর সঙ্গে পড়ার টেবিল জুড়ে দিন। পড়া শেষে টেবিল ভাঁজ করে ক্যাবিনেটের ভেতর ঢুকিয়ে রাখা যাবে।
শিশুদের ভাঁজ করা খেলনা ঘরও পাওয়া যাচ্ছে। ৪ ফুট x ৪ ফুট বা ৪ ফুট x ৬ ফুট খেলনা ঘর নিতে পারেন শিশুর জন্য। দরজা-জানালাসহ পুরে ঘরটাই ভাঁজ করে রাখতে পারবেন অনায়াসে।

Comments

comments

Comments are closed.