প্রচ্ছদ > ট্যাগ আর্কাইভ: তারকার ভিন্ন পেশা

Tag Archives: তারকার ভিন্ন পেশা

আইয়ুব বাচ্চু, জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী

আইয়ুব বাচ্চু, জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী

‘টি-শার্টে নিজেকে বেশ তরুণ মনে হয়’ আইয়ুব বাচ্চু, জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু টি-শার্টের প্রতি ভীষণ দুর্বল। অভ্যাসটা ছোটবেলা থেকেই। শৈশবে ঈদ কিংবা পালা-পার্বণে টি-শার্ট থাকত পছন্দের শীর্ষে। মা-বাবার কাছে প্রথম আবদারই থাকত টি-শার্ট কেনা নিয়ে। সেই থেকে এখনো এই পোশাকটির প্রতি ভালোলাগা অটল। বলেন, ‘টি-শার্ট আমার শরীরেরই একটা অংশ হয়ে গেছে। অন্য কোনো কাপড় পরে আরাম পাই না। তা ছাড়া ...

Read More »

মিথিলা, অভিনেত্রী

মিথিলা, অভিনেত্রী

গলাটা খালিই রাখি মিথিলা, অভিনেত্রী পোশাক সব সময় নিজের স্টাইলে চলতে পছন্দ করি। আমার কোনো ফ্যাশন আইকন নেই। প্রিয় পোশাক সালোয়ার-কামিজ আর শাড়ি। পরিবেশ বুঝে পোশাক নির্বাচন করি। হালকা যেকোনো রং আমার পছন্দ। অনুষঙ্গ সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে কানে একটু ঝোলানো দুল পরি। হাতে আংটি থাকে। তবে গলাটা খালিই রাখি। সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে স্লিপারই বেশি পরি। শাড়ির সাজটা একটু ভিন্ন। শাড়ির সঙ্গে মিল ...

Read More »

সারা যাকের, অভিনেত্রী

সারা যাকের, অভিনেত্রী

আমি খুব সময় মেনে চলি সারা যাকের নির্বাহী পরিচালক এশিয়াটিক মার্কেটিং কম্পানি লিমিটেড সেটা ছিল ষাটের দশক। আমার মা ছিলেন স্কুল শিক্ষক। অন্য পেশার কাউকে আমি তখনো দেখে উঠিনি। তাই মায়ের পেশার বাইরে কিছু ভাবতে পারতাম না। ১৯৮৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে পড়ালেখা শেষ করি। তারপর ১৯৮৫ সালেই যোগ দিই এমআরসি মোড রিসার্চ সেন্টারে। আমার বেতন ছিল ৫ ...

Read More »

মিথিলা, অভিনেত্রী

মিথিলা, অভিনেত্রী

শিক্ষকতাই বেশি ভালো লাগছে রাফিয়াত রশিদ মিথিলা প্রভাষক, ইংরেজি বিভাগ নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় আমি ভিকারুননিসা নূন স্কুলের ছাত্রী ছিলাম। একদিন ক্লাসটিচার জিজ্ঞেস করলেন, ‘তোমরা বড় হয়ে কে কী হতে চাও?’ হুট করে বলে দিলাম, চিত্রশিল্পী হব। তখন আমার আকাঁআকিঁর অভ্যাস ছিল। একই প্রশ্নের উত্তরে অন্যদিন স্যারকে বলেছিলাম, শিক্ষক হব। আমার মাও একজন শিক্ষক। মায়ের প্রতি শিক্ষার্থীদের অগাধ শ্রদ্ধাবোধ দেখে দেখে ছোটবেলা ...

Read More »

শাকিল খান, অভিনেতা

শাকিল খান, অভিনেতা

অফিসে ক্যাজুয়াল ড্রেসেই বেশির ভাগ সময় আসা হয় শাকিল খান ব্যবস্থাপনা পরিচালক রোজ হারবাল চাকরি থেকে আমার প্রথম উপার্জন ছিল সাড়ে চার হাজার ৫০০ টাকা। বন্ধুর একটা বায়িং হাউসে কাজ করে এই বেতন পেয়েছিলাম। প্রথম মাসের বেতনের টাকা পেয়ে কী যে আনন্দ পেয়েছিলাম বলে বোঝানো যাবে না। টাকাটা খরচ  না করে দীর্ঘদিন জমিয়ে রেখেছিলাম। অবশ্য আমার বেতন পাওয়ার কথা পরিবারের ...

Read More »