প্রচ্ছদ > কেনাকাটা > গাড়ি কেনাবেচা > গাড়ি কেনাবেচার হাট
গাড়ি কেনাবেচার হাট

গাড়ি কেনাবেচার হাট

একটি গাড়ির স্বপ্ন কার না থাকে? কিন্তু মধ্যবিত্ত জীবনের নানা টানাপোড়েনে সেই স্বপ্ন অনেকেরই পূরণ হয় না। সেই স্বপ্নটাকে সহজ করে দেওয়ার জন্য আছে কার হাট। এখান থেকে সাধ ও সাধ্যের মেলবন্ধন ঘটিয়ে কম বাজেটের মধ্যেই কিনে ফেলতে পারেন রিকন্ডিশন্ড গাড়ি

ইনফোপিডিয়া ডেস্ক :::
সারি সারি গাড়ি সাজিয়ে রাখা হয়েছে খোলা মাঠে। বিভিন্ন ব্যান্ডের, বিভিন্ন মডেলের, বিভিন্ন রংয়ের হাজারো গাড়ির পসরা। শত শত ক্রেতা-বিক্রেতার আগমন। কেউ এসেছেন গাড়ি কিনতে, আবার কেউ এসেছেন নিজের গাড়িটি বিক্রি করতে। আবার অনেকেই এসেছেন ঘুরে দেখতে। কোথাও দরকষাকষি চলছে, আবার কোথাও চলছে কাগজপত্র তৈরি। কেউবা পছন্দের গাড়িটি ঘুরে ঘুরে দেখছেন ভেতর কিংবা বাইরে থেকে, কেউ গাড়িটি চালিয়ে দেখছেন, এ যেন ক্রেতা-বিক্রেতার এক বিরাট মিলনমেলা। এ চিত্রটা কার হাটের। এখান থেকে সাধ ও সাধ্যের মেলবন্ধন ঘটিয়ে কম বাজেটের মধ্যেই কিনে ফেলতে পারেন রিকন্ডিশন্ড গাড়ি। সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার সারা দিন চলে হাটের বেচাকেনা। পুরনো গাড়ি কিনতে চান কিংবা বিক্রি করতে চান, বেছে নিতে পারেন ‌’কার হাট’।
কার হাটের যাত্রা শুরু হয় ১৯৯৯ সালের ১৩ আগস্ট। মূলত গাড়ির প্রদর্শনী, ক্রয় ও বিক্রয়ের জন্য এখন এটি বেশ বিখ্যাত। ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী পছন্দের গাড়িটি বেছে নিতে পারেন কার হাটের বিশাল বেঞ্চের কালেকশন থেকে।
কার হাট বসে ঢাকার সংসদ ভবনের বিপরীত দিকে রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। আসাদগেট সংলগ্ন আড়ংয়ের পেছনে খেলার মাঠে। টিঅ্যান্ডটি স্কুল ও কলেজ মাঠে। সকাল থেকেই শুরু হয়ে যায় ডিসপ্লে। খুব পুরনো মডেল থেকে শুরু করে খুব রিসেন্ট মডেল পর্যন্ত সব ধরনের গাড়িই এখানে পাওয়া যাবে। গাড়ির গায়ে চেকলিস্ট দেখেই জেনে নিতে পারবেন মডেল নম্বর, রেজিস্ট্রেশনের সাল, ইঞ্জিন সাইজ, দামসহ যাবতীয় তথ্য। তবে অবশ্যই দামাদামি করার সুযোগ রয়েছে। সেলস এক্সিকিউটিভদের কাছ থেকে জেনে নিতে পারবেন গাড়ি সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় তথ্য। সেলস এক্সিকিউটিভকে সঙ্গে নিয়ে টেস্ট ড্রাইভ করেও পরখ করে দেখতে পারেন গাড়ির বর্তমান কন্ডিশন। গাড়ি পছন্দ হলে কার হাট কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে। সব কাগজপত্র ভেরিফিকেশনের দায়িত্ব কার হাটের। কার হাটের তত্ত্বাবধানেই মূল্য পরিশোধ করা যায় বলে এ প্রক্রিয়া নিরাপদ। আর এসব কিছুর জন্য কার হাটকে দিতে হবে মোট মূল্যের ২.৫% কমিশন।

গাড়ি বিক্রেতাদের করণীয়
গাড়ির রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট, ফিটনেস সার্টিফিকেট, ট্যাক্স টোকেন, ইন্স্যুরেন্স প্রভৃতি কাগজপত্রের মূল কপি কার হাটের কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিতে হবে।
ডিসপ্লে চার্জ ৪০০ টাকা দিতে হবে।
গাড়ির দাম উল্লেখ করতে হবে এবং সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত গাড়ি ডিসপ্লে করতে হবে।
গাড়ির চাবি কার হাটের কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিতে হবে, যা সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত রাখতে হবে।
ক্রেতাকে কোনো ফোন নম্বর কিংবা ঠিকানা দেওয়া যাবে না। তা করলে জরিমানা করা হবে।

ক্রেতারা যেসব সেবা পাবেন
বহু ব্যান্ডের আর মডেলের মধ্য থেকে পছন্দের মডেলটি বেছে নেওয়ার সুযোগ।
দক্ষ এবং প্রশিক্ষিত সেলস এক্সিকিউটিভদের সহযোগিতায় সঠিকভাবে গাড়ির পরীক্ষাকরণ।
মূল দামের মাত্র ৫% অগ্রিম দিয়ে গাড়ি বুকিংয়ের সুযোগ।
শনি থেকে বুধবার যে কোনো দিন সুবিধামতো সময়ে গাড়ি ডেলিভারি।
কার হাটের তত্ত্বাবধানে নিরাপদ টর্্যানজ্যাকশন ও মালিকানা পরিবর্তন।
ট্যাক্স টোকেন, ফিটনেস আর ইন্স্যুরেন্স প্রভৃতি কাগজপত্রের সত্যতা যাচাইয়ের সুযোগ।

গাড়ি হস্তান্তর পলিসি
গাড়ি পছন্দ হলে তা কেনার জন্য ৫% অ্যাডভান্স পেমেন্ট করতে হবে, যা হবে ক্যাশে।
ক্রেতাকে নিজে এসে অ্যাডভান্স পরিশোধ করে রসিদ সংগ্রহ করতে হবে।
গাড়ির বাকি মূল্য ক্যাশ টাকা দিয়ে অথবা ঢাকার ভেতরে পে-অর্ডারের মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে।
ক্রেতা স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের যে কোনো শাখায় বাকি টাকা পরিশোধ করতে পারবেন।

যোগাযোগ : হক চেম্বার, লেভেল ১২/, (শমরিতা হাসপাতালের পাশে) ৮৯/২ পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা। ফোন : ৮১৫৭৪১৬, ৮১৫২২৬৫
হাট সম্পর্কে তথ্য জানতে : ০১৯১৯৭৭৭৯৯৯
ওয়েবসাইট : www.carhat.com.bd

Comments

comments

Comments are closed.