গরমে বন্ধু আইপিএস

গরমে বন্ধু আইপিএস

গরম পড়তে শুরু করেছে। আর কমবেশি শুরু হয়েছে লাডশেডিংয়ের ঝক্কি। এসব পরিস্থিতি থেকে রেহাই পেতে সাহায্য নিতে পারেন ইনস্ট্যান্ট পাওয়ার সাপ্লাই বা আইপিএসের।
সাধারণত বাতি ও ফ্যান চালানোর জন্য আইপিএস ব্যবহার করা হয়। কেউ কেউ অবশ্য কম্পিউটার বা টেলিভিশন চালাতেও এটি ব্যবহার করেন।

আইপিএস নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রহিম আফরোজের মিরপুর এলাকার ডিলার বি কে মটরর্সের স্বত্বাধিকারী বেলাল হোসেন খান জানান, গ্রাহকেরা একসঙ্গে বেশ কটি বাতি ও ফ্যান চালাতে পারবে। প্রয়োজনে কম্পিউটার, দুই টনের এসি ও মাইক্রোওয়েভ ওভেনও ব্যবহার করতে পারবেন। বাসা ও কাজের ধরনের ওপর নির্ভর করে বিভিন্ন মডেলের বিভিন্ন ক্ষমতার আইপিএস পাওয়া যায়।
বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির আইপিএস কিনতে পাওয়া যায়। বিভিন্ন কোম্পানির আইপিএসে পরবর্তী রক্ষণাবেক্ষণ সুবিধা ও ওয়ারেন্টি সেবা প্রদান করে। আর যেকোনো প্রয়োজনে আইপিএস কোম্পানির কর্মী এসে বাসায় সেবা দিতে প্রস্তুত।

রহিমআফরোজ
বাজারে রহিমআফরোজ ব্র্যান্ডের বেশ কটি আইপিএস কিনতে পাওয়া যায়। এর মধ্যে ১৮ হাজার ৫৬০ টাকা দামের রেডিয়েন্ট ৩৫০ভিও মডেলের সাহায্যে দুটি লাইট, দুটি ফ্যান চালানো যায়। রহিমআফরোজ রেডিয়েন্ট ৫৫০ভিএ মডেলের দাম ২২ হাজার ৪৪০ টাকা, এর সাহায্যে তিনটি লাইট, তিনটি ফ্যান চালানো যায়। কম্বো ভিএলএক্স ৬০০ভিএ দিয়ে চারটি টিউবলাইট, দুটি ফ্যান ও একটি টেলিভিশন চালানো যায়। এর দাম ২৮ হাজার ৩৬৫ টাকা। রহিমআফরোজ ডিভি ৮০০ ভিএ মডেলের সাহায্যে চারটি টিউবলাইট, তিনটি ফ্যান চালানো যায়। এর দাম ৩৯ হাজার ৩৫০ টাকা। এ ছাড়া বাজারে রহিমআফরোজ আয়ন ১০০০ভিএ, ১৫০০ ভিএ, ২০০০ভিএ, জাম্বো ১০ কেভি ক্ষমতার বিভিন্ন মডেলের বেশ বড় আকারের কাজের জন্য আইপিএস পাওয়া যায়।

সিঙ্গার বাংলাদেশ
বাজারে সিঙ্গার ব্র্যান্ডেরও আইপিএস পাওয়া যায়। এসবিআর৮৩৪০এসডব্লিউ মডেলের সাহায্যে তিনটি এনার্জি লাইট, তিনটি ফ্যান, একটি রঙিন টিভি চালানো যায়। দাম ২৯ হাজার ৯০০ টাকা। ২১ হাজার ৯০০ টাকা দামের এসবিআর৮৩৪০এসডব্লিউয়ের সাহায্যে দুটি এনার্জি লাইট, একটি ফ্যান ও একটি রঙিন টিভি চালানো সম্ভব।

অন্যান্য আইপিএস
এ ছাড়া বাজারে অন্য বিভিন্ন ব্র্যান্ড, যেমন বাটারফ্লাই, নাভানা, হ্যামকো, সনি, ফিলিপস, স্যামসাং, অনিক ব্র্যান্ডের বিভিন্ন আকারের ও ক্ষমতার আইপিএস পাওয়া যায়।

খেয়াল রাখুন
 আইপিএসের সংযোগস্থাপন কোম্পানির ইলেকট্রিশিয়ান দিয়ে করাবেন।
 বাড়ি বা ফ্ল্যাটের ভোল্টেজ পরীক্ষা করে আইপিএস ব্যবহার করুন। অতিরিক্ত ভোল্টেজ ওঠা-নামার দরুন আইপিএসে সমস্যা সৃষ্টি হয়।
 ঝড়ের রাতে কিংবা বজ্রপাতের সময় আইপিএস বন্ধ রাখুন।
 নির্দিষ্ট সময় পরপর আইপিএসের ব্যাটারির পানির মাত্রা পরীক্ষা করুন।
 আইপিএসের সক্ষমতার ওপর নির্ভর করেই ইলেকট্রিক পণ্য ব্যবহার করুন। অযথা ফ্যান বা বৈদ্যুতিক বাতি জ্বালিয়ে রাখবেন না।
 ব্যাটারির সঙ্গে আইপিএস কন্ট্রোলারের সংযোগ মাঝেমধ্যেই পরীক্ষা করুন। ব্যাটারি ও তারের সংযোগের জায়গায় কার্বন জমলে তা দ্রুত পরিষ্কার করুন।

Comments

comments

Comments are closed.