প্রচ্ছদ > ক্যারিয়ার > চাকরির বাজার > শিগগিরই ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি
শিগগিরই ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি

শিগগিরই ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি

প্রিলিমিনারিতে নতুন নিয়ম রেখে শিগগিরই ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে যাচ্ছে সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)। বিসিএস নিয়োগ বিধিমালা সংশোধন হলেই নতুন বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে কমিশনের চেয়ারম্যান জানিয়েছেন। বিসিএস নিয়োগ বিধিমালা সংশোধনে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পাওয়া গেছে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী জানিয়েছেন। তিনি  বলেন, দুই-এক দিনের মধ্যেই বিসিএস নিয়োগ বিধিমালা সংশোধনের আদেশ (এসআরও) জারি করা হবে।
এর ফলে ৩৪তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ১৯ মাস পর সরকারি চাকরিতে যোগদান পরীক্ষার নতুন বিজ্ঞপ্তি পেতে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। ২০১৩ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি ৩৪তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি হয়েছিল। সাধারণত বছরের শুরুতে নতুন বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হলেও দীর্ঘ দিনেও ৩৫তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি না পেয়ে হতাশাও প্রকাশ করেছিলেন সরকারি চাকরিপ্রার্থীরা। এর মধ্যে অনেকের সরকারি চাকরিতে আবেদনের বয়সও পার হয়ে গেছে।
প্রস্তুতি থাকা সত্বেও নিয়োগ বিধি সংশোধনের কারণেই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশে দেরি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পিএসসি চেয়ারম্যান ইকরাম। তিনি বলেন, “আমরা প্রস্তুত আছি, মন্ত্রণালয় থেকে এসআরও  জারি হওয়ার পরেই প্রিলিতে নতুন নিয়ম রেখে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।”
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক গত ৯ ফেব্রুয়রি সংসদে জানান, ৩৫তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৭৪৯ জনকে নিয়োগ দেয়া হবে।

কেমন হবে প্রিলিমিনারি
৩৫তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি ২০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার এমসিকিউ পদ্ধতিতে পরীক্ষা হবে। আর বিসিএসের আবেদন ফরমের দাম ২০০ টাকা বাড়িয়ে করা হচ্ছে ৭০০ টাকা।
তবে প্রতিবন্ধী, সুবিধাবঞ্চিত ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জন্য আবেদনপত্রের দাম ১৫০ টাকা কমিয়ে ১০০ টাকা করা হচ্ছে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান।
তিনি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, মৌখিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৫০ শতাংশ করা হয়েছে। লিখিত পরীক্ষায় পাস নম্বর আগের মতোই ৫০ শতাংশ থাকছে।
বিধিমালা সংশোধনের ফলে লিখিত পরীক্ষায় ৩০ শতাংশের কম নম্বর পেলে প্রার্থী কোনো নম্বর পাননি বলে গণ্য হবে; আগে যা ছিল ২৫ শতাংশ নম্বর।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (বিধি) হাবিব মো. হালিমুজ্জামান এর আগে বলেছিলেন, প্রিলিমিনারিতে নম্বর ও সময় বাড়ানো ছাড়া নিয়োগ বিধিতে প্রার্থীর বয়স, শিক্ষাগত যোগ্যতাসহ মৌলিক কোনো বিষয়ে পরিবর্তন আনেনি সচিব কমিটি।
জনপ্রশাসন সচিবও বলছেন, প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটি যেভাবে অনুমোদন দিয়েছিল সেভাবেই সংশোধিত বিধিমালার এসআরও জারি করা হবে।
বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ৩০০ নম্বরের করাসহ কয়েকটি বিষয়ে নিয়োগ বিধি সংশোধন চেয়ে গত মে মাসে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠায় পিএসসি। মন্ত্রণালয় প্রস্তাবটি যাচাই-বাছাই করে গত ১১ মে প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটিতে তুললে কমিটি প্রিলিতে ২০০ নম্বর রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেয়।
জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর অনুমোদনের পরে নিয়মানুযায়ী গত ৩ জুন আবার তা পিএসসির মতামতের জন্য কমিশনে পাঠানো হয়। পিএসসির মতামত পেয়ে বিধি সংশোধনের প্রস্তাবটি আইন মন্ত্রণালয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার (ভেটিং) জন্য পাঠানো হয়। ভেটিং শেষে চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য বিধিমালাটি যায় প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির কাছে। এদের চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়ায় এখন এসআরও  জারি করা হবে।

Share and Enjoy !

0Shares
0 0

Comments

comments

Comments are closed.