প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > লিমিটেড কোম্পানির নিবন্ধন করবেন যেভাবে
লিমিটেড কোম্পানির নিবন্ধন করবেন যেভাবে

লিমিটেড কোম্পানির নিবন্ধন করবেন যেভাবে

ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানকে লিমিটেড কোম্পানিতে রুপান্তরিত করলে কিছু আইনগত সুবিধা পাওয়া যায়। এ ছাড়া নিরাপত্তার প্রয়োজনেও অনেকে লিমিটেড কোম্পানি গঠন করেন। কোম্পানি গঠন করতে হলে সেটির একটি নাম দিতে হবে। কাঙ্খিত নামে রেজিষ্ট্রেশন করতে গেলে প্রথমে নামের ছাড়পত্র বা নেম ক্লিয়ারেন্স নিতে হবে। এরপর কিছু প্রক্রিয়া মেনে রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। রেজিষ্ট্রেশন ফি অনুমোদিত মূলধনের ওপর নির্ধারিত হয়ে থাকে। ঢাকা অঞ্চলের জন্য এ কাজ করতে হলে কারওয়ান বাজারের টিসিবি ভবনের সাত তলায় অবস্থিত নিবন্ধন দপ্তরে যেতে হবে। এ কাজটি সনাতন পদ্ধতিতে করা যায় আবার অনলাইনেও করা যায়।

নিবন্ধন প্রক্রিয়া
নিবন্ধকের কাছে নিবন্ধন ফি দিয়ে কোম্পানির তিনটি সম্ভাব্য নাম প্রস্তাব প্রস্তাব করতে হবে। আগে নিবন্ধন করা হয়েছে এমন নাম পাওয়া যাবে না। www.roc.gov.bd সাইট থেকে নামের একটি তালিকা দেখা যেতে পারে। নাম অনুমোদনের পর দু’জন সাক্ষীর সামনে সংঘ বিধি ও সংঘ স্মারকে সাক্ষর করতে হয়। এই সংঘ বিধি ও স্মারকে বিশেষ স্ট্যাম্প লাগাতে হয় সেজন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে হয়। টাকার পরিমাণ অনুমোদিত মূলধনের ভিত্তিতে নির্ধারিত হয়ে থাকে। প্রাইভেট কোম্পানি হলে স্ট্যাম্পযুক্ত সংঘবিধি, তিন কপি স্মারক ও সংঘবিধি পূরণ করে ১, ৬, ৯, ১০ ও ১২ ছাড়পত্র, বিশেষ স্ট্যাম্প ক্রয় সংক্রান্ত চালানের ফটোকপি জমা দিতে হয়। পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি গঠনের ক্ষেত্রে এসব কাগজপত্র ছাড়াও প্রসপেক্টাসের বিবরণ, ব্যবসা শুরুর ঘোষণাপত্র এবং বিশেষ ক্ষেত্রে ফরম ১১ জমা দিতে হয়। রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ এন্ড ফার্মস কোম্পানিগুলোর মালিকানা এবং তালিকভুক্তি সংক্রান্ত বিষয়গুলো তদারক করে। প্রাইভেট, পাবলিক এবং বিদেশি কোম্পানির রেজিষ্ট্রেশন ছাড়াও বাণিজ্যিক সংস্থা ও যৌথ মালিকানাধীন কোম্পানির রেজিস্ট্রেশনের কাজ করা হয় এখানে।

প্রস্তাবিত নামের অনুমোদন
প্রস্তাবিত নামের অনুমোদন নেয়া বা নেম ক্লিয়ারেন্স নিতে প্রতি নামের জন্য ১০০ টাকা ফি দিতে হয়। জেনে রাখুন সংঘ স্মারকে ৫০০ টাকা মূল্যের স্ট্যাম্প এর অতিরিক্ত স্ট্যাম্প লাগানোর নিয়ম। মূলধনের পরিমাণ টাকার পরিমাণ ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ২,০০০ টাকা ১০ লাখ এক টাকা থেকে ৩ কোটি টাকা পর্যন্ত ৪,০০০ টাকা ৩ কোটির ঊর্ধ্বে যেকোনো অংকের জন্য ১০,০০০ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি মোট ছয়টি কাগজ জমা দিতে হয়, পাঁচটি পূরণকৃত ফরম এবং একটি সংঘ স্মারক। প্রতি কাগজের জন্য ২০০ টাকা করে মোট ১,২০০ টাকা জমা দিতে হয়।

অনুমোদিত মূলধনের জন্য ফি
মূলধনের পরিমাণ ফি-এর পরমাণ ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত ৩৬০ টাকা ২০,০০০ টাকা অতিক্রমের পর ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত প্রতি ১০,০০০ টাকার জন্য ১৮০ টাকা ৫০,০০০ টাকা অতিক্রমের পর ১,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত প্রতি ১০,০০০ টাকার জন্য ৪৫ টাকা ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত প্রতি দশ হাজারের জন্য ২৮ টাকা এরপর প্রতি এক লাখের জন্য ৪৫ টাকা।

ঢাকা জোনের নিবন্ধন দপ্তর
টিসিবি ভবন (সাত তলা), কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ফোন +৮৮-০২-৮১৮৯৪০১, ৮১৮৯৪০৩, ফ্যাক্স: +৮৮-০২-৮১৮৯৪০২
ই-মেইল: rjsc@roc.gov.bd
ওয়েবসাইট: www.roc.gov.bd

Share and Enjoy !

0Shares
0 0

Comments

comments

Comments are closed.