প্রচ্ছদ > অর্থ-বাণিজ্য > সূচকে ওঠানামা, লেনদেন মন্থর
সূচকে ওঠানামা, লেনদেন মন্থর

সূচকে ওঠানামা, লেনদেন মন্থর

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের চতুর্থ ও শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার লেনদেনের শুরুতে মূল্যসূচক ঊর্ধ্বমুখী থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ওঠানামা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) একই চিত্র। একই সঙ্গে উভয় বাজারের লেনদেনে মন্থর গতি দেখা যাচ্ছে।  

গত রোববার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শ্রী শ্রী জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে সরকারি ছুটি থাকায় শেয়ারবাজার বন্ধ ছিল।

ডিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, দুপুর ২টায় ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক ৩ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৫৫০ পয়েন্টে অবস্থান করে। এ ছাড়া ডিএস-৩০ সূচক সামান্য কমে এক হাজার ৭২৬ পয়েন্টে এবং ডিএসইএস সূচক ৪ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৬১ পয়েন্টে স্থির হয়।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ৯০টির, কমেছে ১৬৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৪টির দাম।

টাকার অংকে লেনদেনের শীর্ষ কোম্পানির মধ্যে ওঠানামা করছে- মবিল যমুনা, কেপিপিএল, বেক্সিমকো, এসিআই, বিএসসি, বিএসসিসিএল, লংকাবাংলা ফিন্যান্স, লাফার্জ সুরমা, আইডিএলসি ও আমরা টেকনোলজি।

এ সময় লেনদেন হয় মোট ৫১১ কোটি ৮৬ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।

আগের কার্যদিবস বুধবার লেনদেন হয়েছিল মোট ৬৪২ কোটি টাকা।   
     
এর আগে বেলা ১১টায় ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৫৬৬ পয়েন্টে, ডিএস-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৭২৯ পয়েন্টে এবং ডিএসইএস সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৬৭ পয়েন্ট হয়।

দুপুর ১২টায় ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৫৬৬ পয়েন্টে, ডিএস-৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৭৩০ পয়েন্টে এবং ডিএসইএস সূচক সামান্য কমে এক হাজার ৬৫ পয়েন্ট হয়।

দুপুর ১টা ৫ মিনিটে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক ৬ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৫৪৭ পয়েন্টে, ডিএস-৩০ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৭২৩ পয়েন্টে এবং ডিএসইএস সূচক ৬ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৫৯ পয়েন্টে স্থির হয়।

অন্যদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, দুপুর ২টা ২ মিনিটে সিএসইর সিএসসিএক্স সূচক ৪ পয়েন্ট কমে ৮ হাজার ৫৪৮ পয়েন্টে অবস্থান করে। এ ছাড়া সিএসই-৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ৫০২ পয়েন্টে দাঁড়ায়।

স্টক এক্সচেঞ্জটিতে লেনদেন হওয়া ২১৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৫০টির, কমেছে ১৪৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টির দাম।

এ সময় লেনদেন হয় মোট ৩৮ কোটি ৬১ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট। 

আগের কার্যদিবস বুধবার লেনদেন হয়েছিল মোট ৪৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা।                

Share and Enjoy !

0Shares
0 0

Comments

comments

Comments are closed.