প্রচ্ছদ > ভোজন > রেসিপি > ঈদের মজাদার রেসিপি
ঈদের মজাদার রেসিপি

ঈদের মজাদার রেসিপি

দই মাংস

ঈদের খানাপিনা

উপকরণ

গরু বা খাসির মাংস ১ কেজি, টক দই ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, পেঁয়াজ কুচি এক কাপের চার ভাগের তিন ভাগ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, সরিষা বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, চিনি আধা টেবিল চামচ, সয়াবিন তেল এক কাপের চার ভাগের তিন ভাগ, লবণ স্বাদমতো।

বারবি-কিউ বিফ কাবাব

ঈদের খানাপিনা

উপকরণ

বিফ কিমা ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কিমা আধা কাপ, ব্রেডক্রাম আধা কাপ, বারবি-কিউ সস ৩ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, দারুচিনি গুঁড়া ১ চা চামচ, শুকনো রোজমেরি ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, টেন্ডারাইজার সল্ট ১ চিমটি, লবণ ১ চা চামচ, সয়াবিন তেল ৩ টেবিল চামচ, শিক বা কাঠি ৪টি।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. তেল ও ৩ টেবিল চামচ বারবি-কিউ সস ছাড়া সব উপকরণ মেখে সারা রাত ম্যারিনেট করে রেখে দিন।

২. পাঁচটি ডিম্বাকার শেপের কাবাব বানিয়ে শিকে গেঁথে নিন।

৩. এবার ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে গরম হলে শিকগুলো ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মাঝারি আঁচে ভাজুন। এ সময় বারবি-কিউ সস একটু পর পর ছড়িয়ে দিন। অথবা ১৮০ ডিগ্রি তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ৮ থেকে ১০ মিনিট বেক করুন। বেক করার সময়ও সস দিন।

৪. বাসমতি চালের ভাত, নানরুটি বা পরোটার সঙ্গে পরিবেশন করুন।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার লেবুর রস, চিনি, তেল, গরম মসলা গুঁড়া ও পেঁয়াজ কুচি ছাড়া সব উপকরণ একত্রে মেখে ম্যারিনেট করে রেখে দিন এক ঘণ্টা। ফ্রিজে রাখবেন না।

২. কড়াইয়ে তেল দিয়ে গরম হলে পেঁয়াজ কুচি দিন। পেঁয়াজ নরম হলে ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে নেড়ে ঢেকে দিন।

৩. প্রথমে ৫ থেকে ৭ মিনিট কড়া আঁচে জ্বাল দিন। এরপর আঁচ কমিয়ে দিন। মাংস সিদ্ধ না হলে ১ কাপ গরম পানি দিয়ে সিদ্ধ ও ভুনা ভুনা করে নিন।

৪. সিদ্ধ হওয়ার পর বাকি উপকরণ মাংসে দিয়ে কিছুক্ষণ দমে রেখে তেল ওপরে উঠলে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

বিফ মার্বেল কাবাব

ঈদের খানাপিনা

উপকরণ

কাবাবের জন্য

গরুর মাংসের মিহি কিমা ৫০০ গ্রাম, কর্নফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামচ, পাউরুটি ২ স্লাইস, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, কাবাব মসলা আধা চা চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ, ফেটানো ডিম ২ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. পাউরুটি, কর্নফ্লাওয়ার ও ডিম ছাড়া সব উপকরণ মেখে ফ্রিজের সাধারই তাপমাত্রায় রেখে দিন ২ ঘণ্টা।

২. ফ্রিজ থেকে মাখা কিমা বের করে বাকি উপকরণ দিয়ে মেখে মার্বেলের মতো বল তৈরি করুন।

উপকরণ

গ্রেভির জন্য

পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, পেঁয়াজ বাটা ১ কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পোস্তদানা বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, টক দই আধা কাপ, গরম পানি ১ কাপ, মিষ্টি দই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, এলাচ ৪টি, দারুচিনি ২ ইঞ্চি ২ টুকরা, তেজপাতা ২টি, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ, সয়াবিন তেল ২ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. কড়াইতে তেল ও ঘি দিয়ে গরম হলে এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা ও পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাজতে হবে।

২. সব বাটা মসলা ও মরিচ গুঁড়া দিয়ে একটু ভেজে ৩ টেবিল চামচ পানি দিয়ে মসলা কষিয়ে টক দই ও মিষ্টি দই দিয়ে ভুনতে হবে। ভুনার সময়েই লবণ দিতে হবে।

৩. মসলা ভুনা ভুনা হলে ১ কাপ গরম পানি দিয়ে নেড়ে ফুটে উঠলে মার্বেলগুলো দিয়ে ঢেকে দিন। মৃদু আঁচ থাকবে। কিছুক্ষণ পর ঢাকনা খুলে আস্তে করে নেড়ে দিন।

৪. মাখা মাখা হলে পেঁয়াজ বেরেস্তা, গরম মসলা গুঁড়া ব্লেন্ড করে দিন। গোলাপজল দিয়ে নেড়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে তেল ওপরে উঠলে নামিয়ে ফেলুন।

৫. বেকিং ডিশে ঢেলে ১৮০হ্ন তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ১৫ মিনিট বেক করে নামিয়ে পোলাও, রুটি বা পরোটার সঙ্গে পরিবেশন করুন।

বিফ ভুনা চাপ

ঈদের খানাপিনা

উপকরণ

গরুর চাপের মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, টক দই আধা কাপ, মরিচ বাটা ২ চা চামচ, ধনে বাটা ২ চা চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, খোসাসহ পেঁপে বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, পেঁয়াজ রিং স্লাইস আধা কাপ, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল আধা কাপ, সয়াবিন তেল আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, চিনি ১ চা চামচ।

মসলার উপকরণ

ছোট জায়ফল ১টা, জয়ত্রী ৩ টুকরা, গোলমরিচ আধা চা চামচ, দারুচিনি ৩ টুকরা, ছোট এলাচ ৫টি, বড় এলাচ ২টি, লবঙ্গ ৪টি, শাহি জিরা আধা চা চামচ। এবার সব মসলা তাওয়ায় টেলে একত্রে গুঁড়া করে নিন।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. মাংস লম্বা পাতলা স্লাইস করে হ্যামার দিয়ে সামান্য থেঁতলে নিন।

২. পেঁয়াজ কুচি, বেরেস্তা, লেবুর রস, সয়াবিন তেল ছাড়া সব উপকরণ একসঙ্গে ম্যারিনেট করে রাখুন ৩ ঘণ্টা।

৩. এবার ম্যারিনেট করা মাংসের গায়ের পানিতেই মাংস সিদ্ধ করুন কম আঁচে।

৪. কড়াইয়ে সয়াবিন তেল গরম হলে পেঁয়াজ রিং স্লাইস দিন। হালকা বাদামি করে পেঁয়াজ ভেজে সিদ্ধ মাংস ঢেলে দিন।

৫. ভাজা মসলার গুঁড়া, চিনি, পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে ঢেকে মৃদু আঁচে রান্না করুন।

৬. মাংস নেড়েচেড়ে রান্না করুন। মসলা মাখা মাখা হয়ে তেলের ওপর উঠলে লেবুর রস ছড়িয়ে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন রুটি, পরোটা, পোলাও বা নানের সঙ্গে।

সিম্পল ডোনার কাবাব

ঈদের খানাপিনা

উপকরণ

গরুর মাংসের কিমা ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ৩ চা চামচ, দারুচিনি গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনেপাতা কুচি আধা কাপ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, ময়দা ২ টেবিল চামচ, ডিম ১টা, লবণ স্বাদমতো, ঘি ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. পেঁয়াজ, রসুন, কাঁচা মরিচ একত্রে মিশিয়ে নিন।

২. এবার সব উপকরণ একত্রে ম্যারিনেট করে রেখে দিন সারা রাত।

৩. লম্বা ডাইসে কিমা সেট করুন।

৪. বেকিং ডিশে তেল গ্রিজ করে ডাইস উল্টে ঢেলে দিন কিমা।

৫. এরপর ১৮০ ডিগ্রি তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ৫০ মিনিট বেক করুন।

৬. স্লাইস করে সালাদ ও রুটির সঙ্গে পরিবেশন করুন।

গ্রিল কিমা কাবাব

 

 

উপকরণ

গরুর মাংসের কিমা ৫০০ গ্রাম, মিহি পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, ধনেপাতা কুচি আধা কাপ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, কাবাব মসলা ১ চা চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, কর্নফ্লাওয়ার বা বেসন ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, সয়াবিন তেল ৩ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. তেল ছাড়া সব উপকরণ কিমার সঙ্গে মেখে ৬ ঘণ্টা রেফ্রিজারেটরের সাধারণ তাপমাত্রায় রেখে দিন।

২. এবার কিমা দিয়ে গোলাকার বল বানিয়ে হাত দিয়ে একটু চ্যাপ্টা করুন।

৩. বেকিং ডিশে তেল ব্রাশ করে কিমার বল সাজিয়ে নিন। এবার কিমার ওপরেও তেল ব্রাশ করুন।

৪. প্রিহিটেড ওভেনে ২০০ ডিগ্রি তাপে ১০ মিনিট গ্রিল করুন কিংবা ফ্রাইপ্যানেও বাদামি করে ভেজে নিতে পারেন গ্রিল কাবাব।

বিফ কাবাব

 

 

উপকরণ

গরুর মাংসের কিমা ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ ডাইস কাট ১ কাপ, টমেটো ডাইস ১ কাপ, মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনেপাতা কুচি আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, বাঁশের কাঠি ৮টি, তেল বা ঘি আধা কাপ, বেসন আধা কাপ, পোস্তদানা বাটা ১ চা চামচ, কাজু বাটা ১ চা চামচ, সাদা তিল বাটা ১ চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. বেসন ঘিয়ে ভেজে নিন।

২. তেল বা ঘি ছাড়া সব উপকরণ, ভাজা বেসন একসঙ্গে মেখে সারা রাত রেখে দিন রেফ্রিজারেটরে।

৩. বাঁশের কাঠিগুলো ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে তুলে নিন।

৪. বাঁশের কাঠিতে দুই পাশে ফাঁকা ফাঁকা রেখে মাখানো কিমা জড়িয়ে দিন। হাত দিয়ে চেপে মসৃণ করে নিন।

৫. ১৮০ ডিগ্রি সে.গ্রে. তাপে ওভেন প্রিহিট করে ১০ মিনিট গ্রিল করে নিন। চারদিক ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে গ্রিল করুন। অথবা ফ্রাইপ্যানে তেল বা ঘি দিয়ে গরম করে কিমা মাখানো কাঠিগুলো ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ভেজে নিন।

বিফ বা মাটন ফ্র্যাজি

1

 

উপকরণ

হাড় ছাড়া গরু বা খাসির মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, কাজুবাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, পোস্তদানা বাটা ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, কিশমিশ বাটা ১ টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, নারিকেল দুধ ২ কাপ, সরিষার তেল আধা কাপ, ঘি ১ টেবিল চামচ, চিনি ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, তরল দুধ আধা কাপ, এলাচ ৩টি, দারুচিনি আড়াই টুকরা, তেজপাতা ৩টি, লবঙ্গ ৩টি।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা, আদা, রসুন, জিরা বাটা, মরিচ গুঁড়া ও লবণ ও তেল দিয়ে মেখে ম্যারিনেট করে আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা রেখে দিন।

২. হাঁড়িতে মাংস নিয়ে চুলায় দিয়ে ঢেকে জ্বাল দিন। মাংসের গায়ের পানি শুকিয়ে গেলে অল্প অল্প করে নারিকেল দুধ দিয়ে মাংস কষিয়ে নিন। এই কষানোতেই মাংস সিদ্ধ হবে। প্রয়োজনে একটু গরম পানি দিন।

৩. মাংস সিদ্ধ হয়ে এলে তরল দুধে কাজু, পোস্ত, কিশমিশ বাটা গুলে মাংসে ঢেলে দিন। বেরেস্তা চিনি দিয়ে মেখে মাংসে দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে ৫ মিনিট চুলায় রেখে নামিয়ে নিন।

৪. একটি ওভেনপ্রুফ বাটিতে মাংস ঢেলে ওপরে ঘি ছড়িয়ে দিন। এবার ফয়েল পেপার দিয়ে ঢেকে দিন।

৫. ২০০ ডিগ্রি তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ১৫ মিনিট রেখে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন পোলাও, রুটি বা পরোটার সঙ্গে।

বি. দ্র. : ওভেনে না দিয়ে ২০-২৫ মিনিট দমে রেখেও পরিবেশন করা যাবে।

Share and Enjoy !

0Shares
0 0

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*