শাকপাতার ওষধি গুণ

শাকপাতার ওষধি গুণ

শাকপাতার আছে অনেক ওষধি গুণ। শাকও হতে পারে চিকিৎসা উপকরণ, দরকারি পথ্য

পুঁই
* সর্দি ও কোষ্ঠকাঠিন্য সারাতে দধি এবং পুঁইশাক সিদ্ধ করে খান।
* পুঁইপাতা থেঁতো করে ব্রণের ওপর প্রলেপ দিলে ব্রণ সেরে যায়।
* পুঁইশাকের সঙ্গে ছাগলের দুধ মিশিয়ে সাত দিন খেলে হুপিং কাশির প্রকোপ কমে।
* পুঁইপাতা ও ডাঁটা পুড়িয়ে ছাই করে দাঁত মাজলে দাঁতের পাইরিয়ায় চমৎকার ফল পাওয়া যায়।

কলমি
* ৩-৪ চা চামচ কলমি শাকের রস একটু ঘি দিয়ে প্রসূতি মাকে খেতে দিন। এতে শিশু পর্যাপ্ত বুকের দুধ পাবে।
* বোল, ভীমরুল বা মৌমাছি কামড়ালে আক্রান্ত স্থানে কলমির ডগা ঘষে দিন। আরাম পাবেন।
* প্রতিদিন ২ চা চামচ কলমি শাকের রস গরম দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খান। এটি বসন্ত রোগের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে।

মুলা
* ১০ গ্রাম শুকনো মুলা ৪ কাপ পানিতে সিদ্ধ করে ১ কাপ হলে নামিয়ে ছেঁকে নিন। দিনে ৫ থেকে ৬ বার খান। আমাশয় ভালো হয়ে যাবে।
* এক থেকে দেড় গ্রাম মুলার বীজ চূর্ণ পানির সঙ্গে মিশিয়ে সকালে ও বিকেলে কিছু খাওয়ার পরে খান। ইউরিন ইনফেকশন থাকবে না।
* ছুলি রোগে ৫ গ্রাম মুলার বীজ পানি দিয়ে বেটে নিন। এই পেস্ট ত্বকে লাগান। ছুলি ভালো হয়ে যাবে।

গিমে
* চোখ উঠলে বা চোখ ব্যথা করলে গিমে পাতা দিয়ে সেক দিন।
* ১ চা চামচ গিমে পাতার রস এবং আধা কাপ আমলকী ভেজানো পানি মিশিয়ে খেলে বমি বন্ধ হয়ে যাবে।
* খাবারের রুচি বাড়াতে সকালে গিমে পাতার রস খান।

Share and Enjoy !

0Shares
0 0

Comments

comments

Comments are closed.